সংস্করণ
Bangla

লড়ে জমি আদায় করলেন মহিলা কুস্তিগীর গীতা

2nd Nov 2016
Add to
Shares
13
Comments
Share This
Add to
Shares
13
Comments
Share

অবশেষে মহিলা কুস্তিগীর গীতা পোঘাটের লড়াই স্বীকৃতি পেল। ২৭ বছর বয়স্ক আন্তর্জাতিক মহিলা কুস্তিগীর গীতা হরিয়ানা পুলিশের ডেপুটি সুপারিনটেন্ডেন্ট হিসাবে কাজের নিয়োগ পত্র পেতে চলেছেন। ২০১০ সালে নয়া দিল্লিতে আয়োজিত কমনওয়েলথ গেমসের ফ্রি-স্টাইল ক্যাটাগরির মহিলা বিভাগে ভারত সর্বপ্রথম সোনা জেতে। ঐতিহাসিক এই জয়ের নায়িকা ছিলেন গীতা।

image


গীতাই এ দেশের প্রথম মহিলা কুস্তিগীর যিনি অলিম্পিকের জন্যেও কোয়ালিফাই করেছিলেন। দেশের একমাত্র মহিলা কুস্তিগীর হিসাবে ২০১২ সালের লন্ডন অলিম্পিকে অংশগ্রহণ করেছেন তিনি।

২০১০ সালের কমনওয়েলথ গেমসে গীতা পোঘাট ঐতিহাসিক ফলাফল করার পরে হরিয়ানা সরকার তাঁকে রাজ্য পুলিশের চাকরি দেবে বলে প্রতিশ্রুতি দেয়। রাজ্য ক্রীড়া দফতরের সংরক্ষিত কোটায় গীতাকে হরিয়ানা পুলিশের ইন্সপেক্টরের পদে চাকরি দেওয়া হয়। কি‌ন্তু গীতা ইন্সপেক্টরের পদে যোগ দিতে নারাজ ছিলেন।

এ কারণে হরিয়ানা ও পাঞ্জাব হাইকোর্টে ২০১০ সালেই গীতা মামলা করেন তাঁকে যেন তাঁর যোগ্যতামাফিক পদে চাকরি দেওয়া হয়। রাজ্য পুলিশের ডিএসপি বা ডেপুটি সুপারিনটেন্ডেন্ট অব পুলিশ পদে নিয়োগের আবেদন জানান। প্রসঙ্গত, ২০১০ সালে কমনওয়েলথে ৫৫ কেজির বিভাগে গীতা পরাজিত করেছিলেন অস্ট্রেলিয়ার নাগরিক মহিলা কুস্তিগীর এমিলি বেনসটেডকে।

গীতার বাবা প্রখ্যাত অলিম্পিয়ান মহাবীর সিং পোঘট। গীতার বোন ববিকা ও ভাইঝি বিনেশও নামী কুস্তিগীর। দিদি গীতার পরে ২০১২ সালে দুজনেই লন্ডন অলিম্পকে অংশ নেন। কীভাবে মহাবীরের প্রশিক্ষণে মেয়েরা কুস্তিগীর হয়ে উঠলেন, তা এখন বলিউডের সিনেমার বিষয়। সম্প্রতি আমির খান এ বিষয়ে একটি ছবি বানিয়েছেন। দঙ্গল নামের ওই ছবিটি শীঘ্রই মুক্তি পাবে।

ডিএসপি পদে নিয়োগ চেয়ে এই যুক্তিতে গীতা মামলা করেছিলেন যে, কমন‌ওয়েলথ গেমসে অন্য পদকজয়ীরা নিয়োগ পত্র পেয়েছেন ডিএসপি হিসাবেই। আর তাঁদের বেশির ভাগই পুরুষ প্রতিযোগী। এদের মধ্যে রয়েছেন বিকাশ কিষাণ, পরমজিত সামোটা, রমেশ কুমার ও রবিন্দর সিং।

গীতা বলেছেন, একজন প্রতিযোগী মেডেল জেতার জন্যে নিজেকে সর্বতোভাবে নিয়োজিত রাখে। আমি চাই না চাকরি নিয়ে আমার সঙ্গে যে ঘটনা ঘটেছে, ওই অবাঞ্ছিত ঘটনা যেন কমনওয়েলথ বা এশিয়ান গেমসে অন্য কোনও স্বর্ণপদক জয়ীর সঙ্গে না ঘটে।

শেষপর্যন্ত নিজের দাবি আদায় করতে সক্ষম হয়েছেন গীতা। রাজ্য মন্ত্রিসভা ইতিমধ্যে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রককে গীতা পোঘাটকে ডিএসপি হিসাবে নিয়োগের নির্দেশ দিয়েছে।

Add to
Shares
13
Comments
Share This
Add to
Shares
13
Comments
Share
Report an issue
Authors

Related Tags