সংস্করণ
Bangla

দিনে 600 রুগির দেখভাল করেন গরিমা

18th Dec 2016
Add to
Shares
12
Comments
Share This
Add to
Shares
12
Comments
Share
image


কর্পোরেটের উচ্চপদের চাকরি-বাকরি ছেড়ে গরিমা ত্রিপাঠী যথন নিজেই একটি সংস্থা গড়তে চাইছিলেন, পরিজন বা বন্ধুস্থানীয়দের অনেকেই তখন তাঁকে ঝুঁকি নিতে নিষেধ করেন। কিন্ত গরিমা ততদিনে মনে মনে নিজের সম্পর্কে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তটা নিয়ে ফেলেছেন। মহি্লা উদ্যোগপতিই হবেন। তাই গরিমার সংস্থা Care24। সংস্থাটি প্রয়োজন মাফিক দক্ষ ও প্রশিক্ষিত শুশ্রূষাকারী সরবরাহ করে থাকে। এখন প্রতিদিন তাঁরা অন্তত পক্ষে ৬০০ জন রোগীর দেখভাল করছেন। দৈনিক কয়েকশো নারী ও পুরুষ রোগীর জন্যে প্রশিক্ষিত নার্স, অ্যাটেন্ডেন্ট কিংবা চাহিদামতো ফিজিওথেরাপিস্টের জোগান দিয়ে থাকে Care24।

ছাত্রী হিসাবে গরিমা ছিলেন অত্যন্ত মেধাবী। বড় হন উত্তরপ্রদেশের নানা শহরে। পরে আইআইটি কানপুরে লেখাপড়া করার সুযোগ পান। এরপর গরিমাকে আর পিছন ফিরে তাকাতে হয়নি। উচ্চশিক্ষার জন্যে বিদে্শে যান। সেরামিকস ছিল প্রিয় বিষয়। হাভার্ডে সেরামিকস নিয়ে লেখাপড়া করেছেন। পরে বিজনেস অ্যানালিস্ট হিসাবে চাকরিতে যোগ দেন Deloitte Consulting India Private Limited এর মত বহুজাতিক সংস্থায়।

সবকিছু বেশ ভালই চলছিল। কিন্তু ভারতে বাবা-মা, পরিবারের অন্যান্যরা রয়েছেন। সেই টানে বিদেশ থেকে দেশে ফি্রে আসেন গরিমা। তবে ততদিনে সেরামিকসের সঙ্গে গভীর প্রেম আরও গাঢ় হয়েছে। কথায় কথায় গরিমা বললেন, এদেশের শিল্পের ইতিহাসে সেরামিকসের অবদানের প্রসঙ্গ।

দেশে ফিরে নিজে কিছু একটা করার ব্যাপারে চিন্তাভাবনা করছিলেন গরিমা। সেইসময় দেখলেন, এ দেশে অসুস্থ রোগীদের শুশ্রূষা করবার মতো প্রয়োজনীয় কর্মীর অভাব। সেই অভাব পূরণ করতেই স্টার্ট আপ সংস্থা Care24 এর জন্ম। কয়েকজন সহযোগী বন্ধুকে নিয়ে নিজের স্টার্ট আপটি চালু করার কয়েক বছরের ভিতরই সাফল্য এসেছে। বিশেষত, বহু বয়স্ক ও অসুস্থ মানুষজন Care24 এর পরিষেবায় প্রভূত উপকৃত হচ্ছেন বলে জানালেন গরিমা। ইতিমধ্যে Care24 চটজলদি পরিষেবা দেওয়ার মতন নিজস্ব পরিকাঠামোও তৈরি করতে পেরেছে।

গরিমা হাসতে হাসতে বললেন, অখচ কর্পোরেটের নিশ্চিত আরামের চাকরি ছাড়তে যদি সেই সময় আমি ভয় পেতাম, তাহলে আমার পক্ষে কিছুই করা সম্ভবপর হত না।

নিজের স্টার্টআপটি সাফল্য পাওয়ার পরে গরিমার উপলব্ধি, এ দেশের মেয়েরা উদ্যোগপতি হতে চাইলে সামাজিকভাবে নানা সহায়তা পাওয়া যায়। বিনিয়োগকারীও পাওয়া যায়। তাই মেয়েরা গতানুগতিক রাস্তা ছেড়ে নতুন কিছু ভাবুন, নতুন কিছু করুন। অবশ্যই মানুষকে পাশে পাবেন।

Add to
Shares
12
Comments
Share This
Add to
Shares
12
Comments
Share
Report an issue
Authors

Related Tags