সংস্করণ
Bangla

শিশুশিক্ষা নিয়ে সচেতনতা বাড়াতে CRY এর ফুটবল

30th Nov 2016
Add to
Shares
0
Comments
Share This
Add to
Shares
0
Comments
Share

শেষ-নভেম্বরের কুয়াশামাখা সকালে এক বিচিত্র অভিজ্ঞতার সাক্ষী থাকল কলকাতা ময়দান। ১২৭ বছরের ঐতিহ্যবাহী মোহনবাগান ফুটবল মাঠে অনুষ্ঠিত হল ‘অন্য রকমের’ এক ফুটবল টুর্নামেন্ট। শিশুদের শিক্ষার অধিকারকে সামনে রেখে, পিছিয়ে পড়া শিশুদের আরও বেশি করে শিক্ষার আঙিনায় নিয়ে আসতে, ক্রাই- চাইল্ড রাইটস অ্যান্ড ইউ-এর উদ্যোগে সামিল হল কলকাতার নামীদামি ন’টি কর্পোরেট সংস্থা। আর তাদের উৎসাহ দিতে মাঠে হাজির হলেন কলকাতা ময়দানের কিংবদন্তীপ্রতিম ফুটবল-ব্যক্তিত্ব থেকে শুরু করে বিনোদন-জগতের তারকারা।

image


ক্রাই ও জিনিয়াস কনসালটেন্টস-এর যৌথ আয়োজনে ‘সকার ফর চাইল্ড রাইটস ২০১৬’-র মূল উদ্দেশ্য ব্যাখ্যা করতে গিয়ে সংস্থার পূর্বাঞ্চলীয় অধিকর্তা অতীন্দ্রনাথ দাস জানালেন, “ফুটবলের সঙ্গে কলকাতাবাসীর নাড়ির যোগাযোগ। তাই আমরা চেয়েছি ফুটবলের মধ্যে দিয়ে শিশুশিক্ষার প্রয়োজনীয়তার প্রতি শহরবাসীর সচেতনতা জাগিয়ে তুলতে।” দেশকে সামগ্রিকভাবে এগিয়ে নিয়ে যেতে শিশুশিক্ষার গুরুত্বের কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে অতীনবাবু আশা প্রকাশ করেন, “এই উদ্যোগের মাধ্যমে সমাজের সর্বস্তরের মানুষ বিষয়টি নিয়ে আরও বেশি করে ওয়াকিবহাল হবেন, ও এই অভিযানের প্রতি সমর্থনের হাত বাড়িয়ে দেবেন। ক্রাই-এর সহযোগী সংস্থা জিনিয়াস কনসালটেন্টস-এর কর্তা আর পি যাদব বলেন, “এই উদ্যোগের মধ্যে দিয়ে শিশুদের মুখে যদি হাসি ফুটিয়ে তোলা যায়, তা হলেই সব পরিশ্রম সার্থক হয়েছে বলে মনে করব।”

মোহনবাগান মাঠে ‘সকার ফর চাইল্ড রাইটস’ প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছিল এলঅ্যান্ডটি, নোকিয়া, এয়ারটেল, এইচডিএফসি ব্যাঙ্ক, ওলা, শ্রেয়ী, সুইগি, টেগা ইন্ডাস্ট্রিজ, আরোহণ প্রভৃতি ন’টি কর্পোরেট সংস্থা। রাউন্ড রবিন পদ্ধতিতে প্রাথমিক রাউন্ড ও দ্বিতীয় রাউন্ডের ১২টি ম্যাচে পয়েন্টের বিচারে ফাইনালে খেলার যোগ্যতা অর্জন করে এইচডিএফসি ব্যাঙ্ক ও সুইগি। ফাইনালে সুইগি-কে ৩-০ গোলে হারিয়ে টুর্নামেন্টে সেরার শিরোপা জিতে নেয় এইচডিএফসি ব্যাঙ্ক। বিজয়ী ও রানার আপ দলের হাতে ট্রফি তুলে দেন প্রাক্তন ফুটবলার গৌতম সরকার।

মাঠে হাজির ছিলেন কলকাতার ফুটবল-লোকগাথার সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে থাকা চুনী গোস্বামী, শ্যাম থাপা, গৌতম সরকারের মতো ব্যক্তিত্বরা। এমন একটি উদ্যোগের সঙ্গে যুক্ত থাকতে পেরে নিজেদের খুশি গোপন করেননি কেউই। ক্রাই-কে সাধুবাদ জানিয়ে চুনী গোস্বামী ও শ্যাম থাপা বলেন, “ফুটবলই পারে এমন একটি বিষয়ে সাধারণ মানুষের সচেতনতা বাড়াতে।” শিশুশিক্ষা ও শিশুদের অধিকার-রক্ষায় ক্রাই দৃষ্টান্তমূলক কাজ করছে বলে জানান গৌতম সরকার। ভেনু-পার্টনার হিসেবে মোহনবাগান কর্তৃপক্ষের তরফে ক্রাই-এর উদ্যোগকে সাধুবাদ জানান ক্লাবের অর্থ-বিষয়ক সচিব দেবাশিস দত্ত।

‘সকার ফর চাইল্ড রাইটস’-কে সফল করে তুলতে কারি-এর দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছিল ওলা, আকোয়া ডায়মন্ড, এক্সপ্লারা, চাউম্যান প্রভৃতি সংস্থাও। অনুষ্ঠানের শেষে ক্রাই-এর তরফ থেকে সাহায্যকারী প্রতিটি সংস্থাকে ধন্যবাদ জানান সংস্থার পূর্বাঞ্চলীয় প্রধান অতীনবাবু। 

Add to
Shares
0
Comments
Share This
Add to
Shares
0
Comments
Share
Report an issue
Authors

Related Tags