সংস্করণ
Bangla

১০০ দিনে ১০০ গ্রাম পাল্টে দেবে ICICI

YS Bengali
1st Dec 2016
Add to
Shares
0
Comments
Share This
Add to
Shares
0
Comments
Share

কর্পোরেটের সামাজিক দায়বদ্ধতা পালনে অভিনব উদ্যোগ নিয়েছে আইসিআইসিআই ব্যাঙ্ক। সম্প্রতি ব্যাঙ্কের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, ভারতের ১০০টি গ্রামকে আগামী ১০০ দিনের ভিতর ডিজিটাল ভিলেজে রূপান্তরিত করতে চলেছে আইসিআইসিআই। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি লাগাতারভাবে ডিজিটাল ইন্ডিয়ার পক্ষে প্রচার চালাচ্ছেন। প্রধানমন্ত্রীর ওই উদ্যোগের পাশে দাঁড়াল এবার আইসিআইসিআই ব্যাঙ্কও।

image


এ ব্যাপারে বছর খানেক আগেই একটি উল্লেখযোগ্য উদ্যোগ নিয়েছিল আইসিআইসিআই। গুজরাটের সবরকান্ত জেলায় আকোদরা নামে একটি প্রত্যন্ত গ্রাম এক বছর আগে দেশের প্রথম ডিজিটাল ভিলেজের চেহারা দিয়েছে আইসিআইসিআই।

প্রাথমিক ওই সাফল্য আসার পরেপরেই গুজরাট মডেলটি সারা দেশে সম্প্রসারিত করার ব্যাপারে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নিল আইসিআইসিআই। এ বিষয়ে আইসিআইসিআই-এর তরফে এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, গ্রামীণ ভারতের জনসাধারণকে সহজ পদ্ধতিতে ডিজিটাল ব্যবস্থার আওতায় আনাই আমাদের প্রধান লক্ষ্য। পাশাপাশি, তারা গ্রামীণ মানুষকে বিশেষত গ্রামবাসী মহিলাদের স্বনির্ভর করার জন্যে বিভিন্ন স্বনির্ভর প্রকল্প চালু করেছে। প্রকল্পগুলিতে কাজ করার জন্যে প্রত্যন্ত গ্রামবাসী মেয়েদের প্রশিক্ষিত করে তোলা হচ্ছে। লাগাতার আয়োজিত হচ্ছে ভোকেশনাল ট্রেনিং সেন্টার।

দেশব্যাপী ১০০টি গ্রামকে ১০০ দিনের ভিতর ডিজিটাল ভিলেজে রূপান্তরিত করার প্রক্রিয়াটিও সহজ করা হয়েছে। আধার কার্ড পেশ করলেই গ্রামবাসীদের আইসিআইসিআই-এর অ্যাকাউন্ট খুলে দেওয়া হচ্ছে। আর তাঁদের হাতে তুলে দেওয়া হচ্ছে ক্যাশলেস পেমেন্টের সুযোগও। মোবাইলের বোতাম টিপেই তাঁরা টাকাপয়সা লেনাদেনা করতে পারবেন।

পুরনো দিনের কাগজপত্রের জমানা থেকে নতুন ডিজিটাল ব্যবস্থার সঙ্গে গ্রামবাসীদের পরিচয় করানোর উদ্দেশে - আধুনিক সুবিধাগুলি তাঁদের হাতে তুলে দেওয়ার কাজটি শুরু হয়েছে আইসিআইসিআই ফাউন্ডেশনের ত‌রফে। এ ব্যাপারে আইসিআইসিআই ব্যাঙ্কের ম্যানেজিং ডিরেক্টর তথা সিইও চন্দা কোচর বলেছেন, আমরা বিশ্বাস করি প্রযুক্তি হল উন্নয়ন বাস্তবায়িত করতে এক শক্তিশালী অস্ত্র। এভাবে আমরা ইতিমধ্যেই গুজরাটের প্রত্যন্ত এলাকায় আকোদরাকে ডিজিটাল ভিলেজে রূপান্তরিত করতে পেরেছি। এখন সেখানে সমকালীন প্রযুক্তির সুফল ভোগ করছেন গ্রামবাসীরা। দেশের উন্নয়নের স্বার্থে জন্যে এ ধরনের কাজ আরও ব্যাপকভাবে করা দরকার।

আইসিআইসিআই ফাউন্ডেশন ফর ইনক্লুসিভ গ্রোথের তরফে ভারতের একঝাঁক গ্রামকে ডিজিটাল ভিলেজ বানানোর যে পরিকল্পনা রূপায়ন করার কাজ চলছে, তার অঙ্গ হিসাবে মোট ১০ হাজার দরিদ্র গ্রামবাসীকে বিভিন্ন ধরনের স্বনির্ভর প্রকল্পে প্রশিক্ষিত করা হচ্ছে বলে আইসিআইসিআই সূত্রে জানা গিয়েছে। আর এঁদের একটা বড়় অংশই হল গ্রামে বসবাসকারী মেয়েরা – যাঁরা সুযোগের অভাবে কাজ পাচ্ছেন না। ১৮ থেকে ৪০ বছর বয়সী এই গ্রামবাসীদের স্থায়ীভাবে বিকল্প বা স্বাধীন জীবিকার বন্দোবস্ত করে দেওয়া আইসিআইসিআই ফাউন্ডেশনের রুরাল ইনিসিয়েটিভের প্রধান লক্ষ্য। এ জন্য স্থানীয় অর্থনীতিকে কাজে লাগিয়ে গ্রামবাসীরা যাতে জীবিকাসংস্থান করতে পারেন সে ব্যাপারে লক্ষ্য রেখে এগোনো হচ্ছে বলে জানা গিয়েছে।

এছাড়াও, দেশের যে ১০০টি গ্রামকে ডিজিটাল ভিলেজে রূপান্তরিত করা হচ্ছে – সেখানকার গ্রামবাসীদের ব্যাঙ্কিং পরিষেবার আওতায় আনতে আইসিআইসিআই সেখানে নিজস্ব শাখা খুলতে চলেছে। সেইসঙ্গে ব্যবস্থা করা হচ্ছে এটিএম পরিষেবারও।

Add to
Shares
0
Comments
Share This
Add to
Shares
0
Comments
Share
Report an issue
Authors

Related Tags